জন মিলটন এর কিছু উক্তি/বাণী

১৬০৮ সালের ৯ ডিসেম্বর মিলটন লন্ডনে জন্মগ্রহণ করেন। তার পূর্বপুরুষরা ছিলেন রোমান ক্যাথলিক। পিতা জন মিলটন সিনিয়র কিন্তু প্রোটেস্ট্যান্ট ধর্মমত গ্রহণ করে পরিবার থেকে আলাদা হয়ে যান। প্রথমে মিলটনকে সেইন্ট পল স্কুলে ভর্তি করা হয়। এখানে গ্রীক ও ল্যাটিন ভাষায় দক্ষতা অর্জন করেন তিনি। তার সাহিত্যকর্মেও গ্রীক ও ল্যাটিনের ক্ল্যাসিক্যাল ছাপ প্রবল। এরপরে কেম্ব্রিজের ক্রাইস্ট কলেজে ভর্তি হন মিলটন এবং তারপর কেম্ব্রিজ ইউনিভার্সিটিতে। ১৬২৯ সালে কেম্ব্রিজ থেকে স্নাতক লাভ করেন তিনি। সে বছর কেম্ব্রিজের ২৪ জন স্নাতকের মধ্যে তিনি ছিলেন চতুর্থ। ১৬৩২ সালে স্নাতকোত্তর লাভ করার পর মিলটনকে কেম্ব্রিজ ইউনিভার্সিটির ইন্সট্রাক্টর হিসেবে কর্মভার গ্রহণের অনুরোধ জানানো হয়। ১৬৩৮ সালে মিলটন ইউরোপ ভ্রমণে বের হন। তৎকালীন ইউরোপের শিল্প-সাহিত্যের কেন্দ্রবিন্দু ইতালিতে কয়েক মাস কাটিয়ে তিনি ১৬৩৯ সালের জুলাইয়ে ইংল্যান্ডে ফিরে আসেন এবং লন্ডনে স্থায়ীভাবে বসবাস করতে থাকেন। ১৬৪৩ সালে তিনি ম্যারি পাওয়েল নামে এক মহিলার সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। কিন্তু তার এ বিয়ে সুখের হয়নি।

১৬৫৮ থেকে ১৬৬৪ সালের মধ্যে মিলটন তার মহাকাব্য প্যারাডাইজ লস্ট রচনা করেন। সেসময় তিনি অন্ধ এবং দরিদ্র ছিলেন। ১৬৭৪ সালে কাব্যটির ২য় সংস্করন প্রকাশিত হয়। মহাকাব্যটি তার নিজের জীবনের হতাশা এবং ব্যর্থতা তুলে ধরে,একই সাথে মানুষের সুপ্ত ক্ষমতাকে নিয়ে আশাবাদ ব্যক্ত করে।

মিলটন ১৬৭৪ সালের ৮ নভেম্বর লন্ডনে মারা যান।

“জীবনকে ঘৃণা কোরো না জীবন কে ভালবাসতে শেখো। ভালবাসা দিয়ে এবং ভালবাসা পেয়ে তোমার ক্ষণিক জীবন স্বর্গীয় সুষমায় উদ্ভাসিত করে তোল।” – জন মিলটন


“বিশ্বাস জীবনকে গতিময়তা দান করে, আর অবিশ্বাস জীবনকে দুর্বিষহ করে তোলে।” – জন মিলটন

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *